রানার প্রতিবেদন : বাচ্চাকে সুরক্ষিত রাখতে মা-বাবা চড়া মূল্যে বাজার থেকে কিনে আনেন বহু জাতিক সংস্থার বেবি পাউডার। বিশ্বাস করেন চোখ বন্ধ করে। কিন্তু সেই বিশ্বাস টলিয়ে দিল বহু জাতিক সংস্থা জনসন এন্ড জনসন। আমেরিকার স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক সংস্থা তাদের পরীক্ষাগারে নমুনা পরীক্ষা করে দেখেছে, জনসন এন্ড জনসন বেবি পাউডারে আছে বিষ। সংস্থা জানিয়েছে, পাউডারে এসবেস্টস এর নমুনা পাওয়া গেছে। শিশুদের জন্য যা ভয়ঙ্কর রকমের ক্ষতিকারক।

আরও পড়ুন : নোবেল প্রাপককে নিয়ে বিবাদে বিজেপি, দলের অন্দরে ক্ষোভের মুখে রাহুল সিনহা

এমনকি এর থেকে চামড়ায় ক্যানসার হবার সম্ভাবনাও থাকে বলে জানিয়েছেন তারা। শুধু আমেরিকা নয়, বিশ্বের বহু দেশের সঙ্গে ভারতেও বিপুল পরিমানে বিক্রি হয় এই সংস্থার বেবি পাউডার। গত বছর ভারতে পরীক্ষাগারে ধরা পড়েছিল এসবেস্টস। সেই সময় বাজার থেকে তুলে নেওয়া হয়েছিল ওই সংস্থার বেবি পাউডার। পরে যখন আবার সেই পাউডার বাজারে ঢোকে তখন সবাই ধরেই নিয়েছিল এবার নিশ্চয় বিষমুক্ত পাউডার এসেছে। কিন্তু আমেরিকায় আবার নতুন করে এই ঘটনা সামনে আসায় ফের চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে।


আমেরিকায় এই ঘোষণা হবার সঙ্গে সঙ্গে কোম্পানিকে বাধ্য করা হয়েছে তাদের সমস্ত পাউডারের কৌটো বাজার থেকে তুলে নিতে। প্রায় ৩৩০০০ কৌটো তুলে নিয়েছে তারা। সেই সঙ্গে জানিয়েছে, খুব দ্রুত নতুন পাউডার বাজারে আনবে তারা।সংস্থার পক্ষ থেকে অবশ্য দাবি করা হয়েছে, তাদের পাউডারে কোনও এসবেস্টস নেই। শুধু সম্মান রক্ষার জন্যই নাকি তারা পাউডার বাজার থেকে তুলে নিয়েছে। একইসঙ্গে নমুনা পরীক্ষার বৈধতা নিয়েও প্রশ্ন তোলা হয়েছে। এই খবর সামনে আসতেই ভারতেও নতুন করে চাঞ্চল্য মাথাচাড়া দিয়েছে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা দাবি করেছেন, অবিলম্বে ভারতে এই কোম্পানির পণ্য আবার নতুন করে পরীক্ষা করা হোক, আদৌ সেটা শিশুদের জন্য নিরাপদ কিনা।