নির্মলা

রানার প্রতিবেদন : বাজেটের দিন নিশ্বব্দ বিপ্লব ঘটে গেল অর্থমন্ত্রী নির্মলা সিতারামনের হাত ধরে। স্বাধীনতার পর থেকে সমস্ত অর্থমন্ত্রীকে দেখা গেছে বাজেটের নথি ব্রিফকেসে ভরে সংসদে প্রবেশ করতে। এটা পশ্চিমি সংস্কৃতি। এই সংস্কৃতির অবসান করলেন নির্মলা সীতারামন। আজ সংসদে এলেন লাল কাপড়ে সমস্ত নথি মোরা, তার ওপর অশোক স্তম্ভ বসানো। এই ছবি সামনে আসা মাত্র দেশজুড়ে শুরু হয়েছে হৈচৈ। এক নতুন নিদর্শন স্থাপন করলেন নির্মলা সীতারামন। বাজেট নথি ব্রিফকেসে নিয়ে আসার প্রচলন হয় আশির দশকে। ব্রিটেনের চ্যান্সেলর অফ দ্য এক্সচেকার প্রথম এই চামড়ার ব্রিফকেস ব্যবহার করেছিলেন পার্লামেন্টে বাজেট নথি নিয়ে আসার জন্য।

আরও পড়ুন : রাস্তা আটকে দুর্গাপূজা নয়, কড়া নির্দেশ মমতা সরকারের


রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা বলছেন, এটা মোদি সরকারের একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রতীকী পদক্ষেপ। প্রধামমন্ত্রী এমনিতেই নির্মলা সীতারামনকে অর্থমন্ত্রী করে নতুন নজির স্থাপন করেছেন। এর আগে পূর্ণাঙ্গ অর্থমন্ত্রী পদে কোনও মহিলা সংসদকে দেখা যায়নি। ৭০-৭১ সালে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী একবছরের জন্য অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসাবে অর্থমন্ত্রক সামলে ছিলেন। ওই একবারই একজন মহিলা নেত্রীকে দেখা গিয়েছিল বাজেট পেশ করতে। পূর্ণাঙ্গ অর্থমন্ত্রী হিসাবে নির্মলাই প্রথম মহিলা সাংসদ। এর আগে ব্রিটিশ প্রথা ভেঙ্গে একই সঙ্গে রেল ও সাধারণ বাজেট পেশ করে মোদি সরকার। ব্রিটিশ জামানা থেকে সাধারণ বাজেট ও রেল বাজেট আলাদা আলাদা ভাবে পেশ হতো। সেই প্রথার অবসান করে মোদি সরকার।

আরও পড়ুন : রাস্তা আটকে দুর্গাপূজা নয়, কড়া নির্দেশ মমতা সরকারের


নির্মলা সীতারামনের মুখ্য অর্থনৈতিক উপদেষ্টা কৃষ্ণামূর্তি সুব্রামানিয়াম জানিয়েছেন, নির্মলা ইচ্ছা প্রকাশ করেন, ভারতীয় ঐতিহ্য মেনে তিনি বই খাতা নিয়েই সংসদে ঢুকবেন। যেটা মোরা থাকবে লাল কাপড়ে, যা ভারতীয় কৃষ্টি অনুযায়ী শুভ হিসাবে ধরা হয়। ভারতীয় পরম্পরা অনুযায়ী চামড়ার থলে বা ব্যাগ কোনও অনুষ্ঠানে অশুভ হিসাবে গন্য করা হয়। কিন্তু মজার বিষয় হলো , সারা বছরের হিসেব নিকেশ এবং অর্থ বরাদ্দের যে প্রক্রিয়া তাকে বলা হয় বাজেট। শব্দটি ইংরেজি শব্দমালায় থাকলেও আসলে এটির উৎপত্তি হয়েছে ফরাসি শব্দ বাগতি শব্দ থেকে। বাগতি শব্দের অর্থই হলো চামড়ার ব্যাগ। এবার বাজেট তো রইলো কিন্তু চামড়ার ব্যাগ আর রইলো না ।