রানার প্রতিবেদন : নুসরতের বিরুদ্ধে মৌলবাদীদের আক্রমণকে ভোঁতা করতে এবার পাল্টা কামান দাগলেন তসলিমা নাসরিন। তিনি লিখেছেন, মমতা ব্যানার্জি যখন মাথায় হিজাব পরে তখন তাঁর প্রশংসা করেন আপনারা, বলেন উনি ধর্ম নিরপেক্ষ। অথচ নুসরত যখন সিঁদুর পরে তখন বলেন ও ধর্ম বিরোধী। এটাই হলো দ্বিচারিতা। এর আগেও বহু বার মুসলিম মৌলবাদী ভাবনার বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন তসলিমা। এবার মুখ খুললেন নুসরাতকে নিয়ে।

আরও পড়ুন : নারদ নিয়ে আবার ঝাপাচ্ছে সিবিআই, কলকাতায় আসছে ম্যাথু, উদ্বেগে তৃনমূল

অষ্টমীর দিন নুসরত পুজোর অঞ্জলি দেওয়ায় তার বিরুদ্ধে প্রবল সমালোচনা করেছেন মুসলিম ধর্মীয় নেতাদের একাংশ। সেই সমালোচনার জবাব দিতে গিয়েই মমতার উদাহরণ টেনে এনেছেন তিনি। মমতাকে বহুবার মুসলিমদের ধর্মীয় অনুষ্টানে অংশ নিতে দেখা গেছে, যা নিয়ে মমতার প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন মুসলিম ধর্মীয় নেতারা। কিন্তু তারাই আবার খড়গহস্ত হয়েছেন নুসরাতের ওপর পুজোয় অংশ নেওয়ায়।


অষ্টমীপূজোর দিন নুসরত গিয়েছিলেন কলকাতার সুরুচি সংঘের পুজোতে। সেখানে স্বামী নিখিল জৈনকে নিয়ে তিনি মন্ত্রোচ্চারন করেই অষ্টমী পুজোর অঞ্জলি দেন। সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। নুসরত শাড়ি আর নিখিল ধুতি পাঞ্জাবি পরে এসেছিলেন। পুজোর পর নুসরত বলেছিলেন, নিখিলকে বাঙালি সংস্কৃতির সঙ্গে একাত্ম করতেই ওকে নিয়ে এসেছেন পুজোর অঞ্জলিতে। তিনি নিজে আপাদমস্তক বাঙালি, তিনি চান নিখিলও বাঙালির সংস্কৃতিকে চিনুক-জানুক।

আরও পড়ুন : বিশ্ব জোড়া চমকের অপেক্ষা, সর্ববৃহৎ ‘সবুজ প্রাচীর’, নির্মাণের সিধান্ত মোদির

আর দুর্গা পূজা হলো বাঙালির সবচেয়ে বড় সাংস্কৃতিক উৎসব। এদিন দেওবন্দের সমালোচনা নিয়ে তার প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে নুসরত বলেছন, বাঙালি হিসাবে সেই সংস্কৃতিতে তিনি বড় হয়েছেন যেখানে প্রত্যেকের নিজের মতো করে ধর্মচারনের অধিকার স্বীকার করা হয়, তিনি নিজের মনের ডাকে সাড়া দিয়ে যা ভালো লেগেছে করেছেন, এনিয়ে কারও কিছু বলার থাকতে পারে বলে তিনি মনে করেন না।