রানার প্রতিবেদন : একবারে ছবি সহ প্রতিবেদন প্রকাশ করে ক্রিকেট দুনিয়ায় হৈচৈ ফেলে দিয়েছে ‘এশিয়ান এজ’ পত্রিকা। তাদের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, বিরাট কোহলি এবং রোহিত শর্মার মধ্যে তিক্ততার মূল কারন ত্রিকোন প্রেম। সংবাদে বলা হয়েছে, বর্তমানে রোহিত শর্মার স্ত্রী ঋত্বিকা হলেন বিরাট কোহলির প্রাক্তন প্রেমিকা। দুজনের মধ্যে গভীর বন্ধুত্ব গড়ে উঠেছিল, সেই সময় মঞ্চে আবির্ভুত হন রোহিত, সম্পর্কে ফাটল তৈরি হয় বিরাট এবং ঋত্বিকার মধ্যে। শেষপর্য্ন্ত বিয়ে হয় রোহিত এবং ঋত্বিকার।

আরও পড়ুন : প্রতীক্ষার অবসান, রামমন্দির মামলার রায়দানের দিন ঘোষণা করলো সুপ্রিম কোর্ট

অন্য দিকে আবার নতুন করে প্রেমে পড়েন বিরাট, পাত্রী অনুষ্কা শর্মা। তারাও এখন বিবাহিত। কিন্তু পুরনো তিক্ততা বারবার ফুটে বেরিয়ে আসছে খেলার মাঠে। বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ হাতছাড়া হওয়ার পর বিরাটের বিরুদ্ধে একগাদা অভিযোগ নিয়ে সরব হয়েছিলেন একাধিক ক্রিকেটার, শোনা যায় সেই বিদ্রোহের নেতৃত্বে ছিলেন রোহিত শর্মা। কিন্তু শেষপর্যন্ত নিজের আসন অক্ষত রাখতে সক্ষম হন বিরাট। কিন্তু তিক্ততা এখনো দূর হয়নি, যদিও নিজেদের ক্রিকেট স্বার্থের কথা ভেবে দুজনই অন্তত প্রকাশ্যে সুসম্পর্কের ভান করে চলেছেন।


প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১০ সালে আইপিএল চলাকালীন বিরাটের সঙ্গে প্রথম পরিচয় হয় ঋত্বিকার। তারপর আস্তে আস্তে দুজনের বন্ধুত্ব গভীর হতে থাকে। ঋত্বিকা একটি বহুজাতিক কোম্পানির স্পোর্টস ম্যানেজার হিসাবে তখন কর্মরত ছিলেন। শুধু ঋত্বিকার সঙ্গে সময় কাটানোর জন্য ২০১৩ সালে কিছুদিন নিভৃতে মুম্বাইয়ে গিয়ে থাকেন বিরাট। সেই সময় দুজনকে ঘুরে বেড়াতেও দেখা গেছে। সেই সময় মুম্বাইয়ের সংবাদ পত্র ডিএনএ ছেপেছিল তাদের নৈশাহারে যাবার ছবি। ২০১৪ সালে ঋত্বিকার সঙ্গে পরিচয় হয় মুম্বাইয়ের সুপারস্টার ক্রিকেটার রোহিত শর্মার। সুন্দরী ঋত্বিকার প্রেমে পড়ে যান রোহিত।

আরও পড়ুন : জীবনে প্রথম অঞ্জলি দিলেন নুসরত, কিন্তু কেন ? উত্তর শুনে বিস্মিত সকলে

সম্পর্ক গড়াতে শুরু করে দ্রুত, অনেকে বলেন তার মূল কারণ, দুজনই থাকতেন একই শহরে। অন্যদিকে দূরত্ব বাড়তে থাকে বিরাট-ঋত্বিকার। শেষ পর্যন্ত বিরাটের সঙ্গে সম্পর্কে ইতি টেনে রোহিতকেই জীবনসঙ্গী বেছে নেন ঋত্বিকা। বিরাটের জীবনেও এসেছে একাধিক নারী, যার একজন ঋত্বিকা। শেষপর্যন্ত অনুষ্কাতেই প্রেমের তরী নোঙর করেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক। কিন্তু পুরনো ক্ষত যে আজও যায়নি, তার উদাহরণ পাওয়া গেছে বারবার। দুজনই দলে সুপারস্টার ফলে দুজনের এই দ্বন্দ্বের বিষয়টি জেনেও পাশ কাটিয়ে যায় বোর্ড। আর ঋত্বিকা? ফলাও করে এই খবর ছাপার পরেই মুখে কুলুপ এটে বসে আছেন তিনি।