রানার প্রতিবেদন : এখনো আদালতে মামলা চলছে। বিতর্কিত স্থানের প্রকৃত মালিকানা কাদের হাতে থাকবে তা নিয়ে আগামী মাসেই রায় ঘোষণা হবার কথা। বিতর্কিত জমিটি হিন্দুদের নাকি মুসলিমদের দখলে যাবে তা সম্ভবত জানা যাবে আগামী ১৭ নভেম্বর।

আরও পড়ুন : ভারতীয় বিমান পাকিস্তানে ঢুকতেই ঘিরে ফেললো এফ-১৬, আকাশে হারহিম আতঙ্ক

সেই রায় ঘোষণার আগেই মন্দির নির্মাণের ঘোষণা করে দিলেন বিজেপি সাংসদ সাক্ষী মহারাজ। এমনকি দিনক্ষণ ঘোষণা করে দিয়ে তিনি বলেছেন, সব প্রস্তুতি সারা, আগামী ৬ ডিসেম্বর থেকে শুরু হবে রাম মন্দির নির্মাণের কাজ। প্রসঙ্গত এই ৬ ডিসেম্বর তারিখেই বাবরি মসজিদ ভেঙে দিয়েছিল হিন্দুত্ববাদীরা।


বিতর্কিত স্থানে রামের মন্দির ছিল বলে দাবি হিন্দুত্ববাদীদের। সেই জায়গায় মন্দির ভেঙে মসজিদ নির্মাণ করা হয়েছে, এই অভিযোগে ২৭ বছর আগে মসজিদটি ভেঙে দেওয়া হয়। এরপর থেকেই ওই জমি নিয়ে লাগাতার আইনি লড়াই চলে আসছে। এই প্রথম সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, আর অপেক্ষা নয়, এবার চূড়ান্ত রায় ঘোষণা করা হবে। এমনকি সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ জানিয়েছেন, আগামী ১৭ নভেম্বর রায় ঘোষণা করা হবে। আদালতের আদেশ মতই সমস্ত পক্ষের কৌঁসুলিরা তাদের সওয়াল শেষ করেছেন ১৬ অক্টোবর। এবার রায়ের খসড়া তৈরি করতে একমাস লাগবে বলে জানানো হয়েছে। সেই রায়ের জন্য অপেক্ষা না করেই বৃহস্পতিবার সাক্ষী মহারাজ জানিয়ে দেন, আগামী ৬ ডিসেম্বর থেকে তারা মন্দির নির্মাণের কাজ শুরু করে দেবেন।