ayushman

রানার প্রতিবেদন : এরাজ্যে আয়ুষ্মান প্রকল্প চালানো হবে না। নদিয়ার সভা থেকে আচমকা এই ঘোষণা করে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই ঘোষণার ফলে এরাজ্যে চরম অনিশ্চয়তার মধ্য পড়লো গরিব মানুসের জন্য ঘোষিত এই স্বাস্থ্যবিমা। মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রীর নামে প্রকল্প চালানো হচ্ছে অথচ তাতে রাজ্যকে দিতে হচ্ছে চল্লিশ শতাংশ টাকা। তাঁর সাফ কথা, এই প্রকল্পের জন্য এক টাকাও দেবে না রাজ্য সরকার।এরপরও যদি এই প্রকল্প এরাজ্যে ওরা চালাতে চায় , তবে পুরো টাকাটাও ওদেরই দিতে হবে।


গত সেপ্টেম্বরেই এই প্রকল্প ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। দেশে দারিদ্রসীমার নিচে বসবাসকারীরা এই প্রকল্পের আওতায় বিনামূল্যে পাঁচ লক্ষ টাকা পর্যন্ত চিকিৎসা পরিষেবা পাবেন। কেন্দ্রের দাবি, এটাই এখন বিশ্বের সর্ববৃহৎ স্বাস্থ্য বিমা প্রকল্প। এই প্রকল্পে কেন্দ্র দেবে ৬০ শতাংশ আর রাজ্য সরকারগুলিকে দিতে হবে ৪০শতাংশ টাকা। মমতা বলেন,” আমরা দেব ৪০ শতাংশ টাকা আর প্রধানমন্ত্রীর মুখ আর পদ্মফুলের ছবি দিয়ে প্রকল্পের প্রচার করা হবে। এটা হতে দেব না” তিনি আরও বলেন, পোস্ট অফিসের মাধ্যমে মানুষের বাড়ি বাড়ি চিঠি পাঠিয়ে বলা হচ্ছে এটা কেন্দ্রীয় সরকারের প্রকল্প।


মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, রাজ্যগুলোতে একটা সমান্তরাল সরকার চালাবার চেষ্টা করছে বিজেপি। তারা দাবি করছে, সবই নাকি তাদের প্রকল্প, সেটা স্বাস্থ্য হোক, শিক্ষা হোক কিংবা পরিকাঠামো। তাঁর কটাক্ষ, যদি কেন্দ্রই সব করে তাহলে রাজ্য সরকারগুলির আর দরকার কি? মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, গরিবের প্রকৃত স্বাস্থ্যবিমা যদি কিছু থাকে সেটা হলো এরাজ্যে আরোগ্যশ্রী, এই প্রকল্প আয়ুষ্মান থেকে অনেক এগিয়ে।