রানার প্রতিবেদন : অপর্ণা সেন সহ দেশের ৫০ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি চিঠি দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রীকে। দাবি ছিল, রামের নামে গণপ্রহারের ঘটনা ঘটছে দেশজুড়ে। এই ঘটনা বন্ধে প্রধানমন্ত্রীকে উদ্যোগ নেবার আবেদন জানিয়েছিলেন তারা। সেই চিঠির সূত্রেই এবার সেই ৫০ জনের বিরুদ্ধে দায়ের হলো এফআইআর। তাদের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহের অভিযোগ আনা হয়েছে। চিঠিটি তারা লিখেছিলেন গত জুলাই মাসে। ঘটনার মূল কারিগর বিহারের মুজফরপুর -এর আইনজীবী সুধীর কুমার ওঝা। দুমাস আগে তিনি মুখ্য মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সূর্যকান্ত তিওয়ারির কাছে একটি পিটিশন দাখিল করেন। সেই পিটিশনের পরিপ্রেক্ষিতে দেওয়া নির্দেশ বলেই মুজফরপুর সদর পুলিশ থানায় এফআইআর দায়ের করেছেন সুধীর কুমার ওঝা।


অপর্ণা সেন সহ মোট ৫০ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি মিলেই ওই চিঠি দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রীকে। অপর্ণা সেন ছাড়াও সেই চিঠিতে স্বাক্ষর করেছিলেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, শ্যাম বেনেগাল এবং শুভা মুদ্গলের মতো খ্যাতনামা মানুষেরা। কিন্তু সেই চিঠি নিয়ে তুমুল বিতর্ক হয়েছে দেশজুড়ে। অপর্ণা সেনদের বিরুদ্ধে মোদি সরকার, বিজেপি এবং সঙ্ঘের বিরুদ্ধে চক্রান্ত করার এবং বিরোধীদের হয়ে রাজনীতি করার অভিযোগ উঠেছিল। যদিও সেই সব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে অপর্ণা সেনরা তখন বলেছিলেন, দেশ জুড়ে অসহিষ্ণুতা বাড়ছে, দেশের নাগরিক হিসাবেই তারা উদ্বিগ্ন বোধ করছেন, এবং এরজন্য তারা সরকার প্রধানের কাছেই অনুরোধ করেছেন সমস্যার হাল করার। যদিও সেই পুরনো অভিযোগই ফের খুঁচিয়ে তুলে বিশিষ্টজনদের বিরুদ্ধে এবার মামলা দায়ের হলো বিহারে।