রানার প্রতিবেদন : বিজেপিকে রুখতে নিত্য নতুন কৌশল আবিষ্কার করে চলেছেন তৃনমূল নেত্রী। এই প্রয়াসে নতুন সংযোজন “মুশকিল আসান প্রকল্প” এই প্রকল্পের মাধ্যমেই পাড়ায় পাড়ায় , মহল্লায় মহল্লায় তৈরি হবে বিজেপি প্রতিরোধী ব্যবস্থা। কি এই প্রকল্প? তৃনমূল সূত্র জানাচ্ছে, বিজেপি যেমন সমাজের বিশিষ্ট লোকদের কাছে যাচ্ছে, তাদের কাছে পরামর্শ চাইছে, তেমনি ভাবে নিচু তলায় এই কাজ টা করবে তৃনমূল। শুধু দেখা করা কিংবা পরামর্শ চাওয়াই নয়, তাদেরকে প্রত্যক্ষ ভাবে জড়িয়ে নেওয়া হবে সামাজিক কাজের সঙ্গে। প্রত্যেক পাড়ায় এবং মহল্লায়, এমন কিছু ব্যক্তি থাকেন, যারা ছোট্ট এলাকার মানুষের কাছে যেন মুশকিল আসান। যে কোনও সমস্যা, সেটা চিকিৎসা হোক কিংবা দরখাস্ত লেখা,এই সব মানুষদের যুক্ত করতে হবে, পাড়া কমিটির সঙ্গে। যদি তা সম্ভব না হয়, তবে নানাভাবে তার সাহায্য সহযোগিতা চাওয়া হবে। এলাকার কাজকর্ম নিয়ে সেই ব্যক্তির যদি কোনও ক্ষোভ থাকে যত্ন নিয়ে শুনতে হবে এবং তা দূর করার চেষ্টা করতে হবে। এই কাজ দ্রুত শুরু করতে বলা হয়েছে।


পাড়ায় সাধারন ভোটারদের মধ্যে কারও কোনও ক্ষোভ আছে কিনা এবং সেই ক্ষোভ কি কারণে সব খুঁজে বার করতে হবে। সেই ক্ষোভ দূর করার চেষ্টা করতে হবে এবং সেই কাজে পাড়ার ওই বিশিষ্ট মানুষটিকে সেতু হিসাবে কাজে লাগাতে হবে। এমনও বলা হয়েছে, ওই বিশিষ্ট ব্যক্তি যদি তৃনমূল বিরোধী হন, সেক্ষেত্রেও তার কাছে যেতে হবে, তাকে সম্মান দিয়ে তার সাহায্য চাইতে হবে। এলাকার মানুষের সমস্যাগুলি নিয়ে তার সঙ্গে কথা বলে সমাধানের রাস্তা বার করতে হবে। এভাবেই একেবারে পাড়ায় পাড়ায় মহল্লায় মহল্লায় নিজেদের জন সংযোগকে সুদৃঢ় করার কথা বলা হয়েছে। উদ্দেশ্য একটাই নিজেদের জনসংযোগ মজবুত করে বিজেপির জন্য পথ কঠিন করে দেওয়া। এভাবেই একেবারে নিচু তলায় বিজেপিকে রুখতে শক্ত বাঁধ তৈরি করা সম্ভব।এই নির্দেশ মাথায় রেখেই তৃনমূল কর্মীদের ঝাঁপিয়ে পড়তে বলা হয়েছে।